শুক্রবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৭ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

১০ চোরাচালনকারী গ্রেপ্তার, উদ্ধার সোনার ৭০টি বার

স্বর্ণ চোরাচালানকারী একটি চক্রের মূল হোতা নজরুল ইসলাম লিটনসহ ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল। গত রোববার দিবাগত রাত থেকে গতকাল সোমবার দুপুর পর্যন্ত বিভিন্ন সময় এদের গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল দুপুরে পল্টনে নজরুলের বাসায় অভিযান চালায় ডিবি পুলিশ। সেখানে বালিশের ভেতর থেকে সোনার ৭০টি বার এবং ৩৫ লাখ টাকা ও সৌদি মুদ্রা পাঁচ হাজার রিয়াল উদ্ধার করা হয়।আজ মঙ্গলবার রাজধানীর মিন্টো রোডে ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেলে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে ডিবির যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম এসব তথ্য জানান । গ্রেপ্তার হওয়া বাকি নয়জন হলেন ইকরামুল হক পারভেজ, মিজানুর রহমান রিপন, আবুল হোসেন সুমন, অসীম কুমার সিংহ, আবদুল কাদের, আনিসুর রহমান, বাবুল পোদ্দার, আবদুল মান্নান ভূইয়া ও জাহিদুর রহমান। মনিরুল জানান, রোববার রাতে শাহজালাল বিমানবন্দরের বোডিং ব্রিজ পার হওয়ার সময় নজরুল ছাড়া বাকি নয়জনকে আটক করা হয়। তাঁরা মালয়েশিয়া যাচ্ছিলেন। পরে তাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল দুপুরে নজরুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। ডিবি সূত্র জানায়, গত ২৬ এপ্রিল ১০৫ কেজি স্বর্ণ আটক করে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর। সেই ঘটনায় বাংলাদেশ বিমানের এক কর্মচারী আনিসকে আটক করা হয়। তাঁর কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী গত রোববার রাতে নয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। মনিরুল জানান, এই চক্রটি দীর্ঘ দিন ধরে স্বর্ণ চোরাচালান ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। নজরুল বছরের বেশির ভাগ সময়ই দুবাই ও সিঙ্গাপুরে থাকতেন। তিনি সেখান থেকে স্বর্ণ কিনে বাংলাদেশে চালান পাঠাতেন। ইকরামুল হক তা সংগ্রহ করে ভারতসহ বিভিন্ন দেশে পাচার করতেন। প্রত্যেক সপ্তাহে এই চক্রটি গড়ে দুটি চালান বাংলাদেশে নিয়ে আসে। বিমানবন্দরের বিভিন্ন সংস্থার মধ্যে এই চোরাচালান সিন্ডিকেটের সদস্যরা রয়েছে বলে জানিয়েছেন মনিরুল ।