শনিবার, ২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিজয়নগরে কারচুপি ও কেন্দ্র দখলের অভিযোগ: এনএস আই সদস্য লাঞ্চিত

up elecফরহাদুল ইসলাম পারভেজ : কারচুপি, কেন্দ্র দখল, পোলিং এজেন্টদের মারধোর, জাল ভোট প্রদান, নির্বাচন বর্জনের মধ্য ৬ষ্ঠ দফা উপজেলা নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা নির্বাচনে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে।
 সকাল থেকেই ভোটার উপস্থিতি খুবই কম ছিল। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সরকার দলীয় সমর্থকর বিভিন্ন কেন্দ্র দখল করার চেষ্টা চালায়। সকালে চরইসলামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে অনিয়মের তথ্য দেয়ায় এনএসআই’র এক সদস্য লাঞ্চিত করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বশিরুল হক ভূইয়া।
 নাম প্রকাশ না করার শর্তে একটি সূত্র জানায়, চরইসলামপুর ভোট কেন্দ্র দখলের বিষয়ে এনএসআই’র সদস্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করলে ওই কর্মকর্তা উত্তেজিত হয়ে তাকে লাঞ্চিত করে।এদিকে খাদুরাইল কেন্দ্র থেকে ৫টি মোবাইল সেট জব্দ করেছে সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।
 দুপুর পর্যন্ত ভোট চলাকালে উপজেলার বড়পুকুরপাড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, আলাকপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বোয়ালখলা প্রাথমিক বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর মাদ্রাসা কেন্দ্র, আদমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরইসলামপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়, বিষ্ণুপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সাতগাও প্রাথমিক বিদ্যালয়, আবদুল্লাহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কেনা দখিল মাদ্রাসা, আরিয়ল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মেঘশিমূল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ কমপক্ষে ৩০টি ভোট কেন্দ্র দখল করে।
 
জেলা জাতীয় ছাত্র সমাজের সাধারণ সম্পাদক কেএম সুজন অভিযোগ করেন, আওয়ামী সমর্থক প্রার্থী তানভীর ভূইয়া পক্ষে তার আত্মীয়স্বজন এবং আওয়ামী লীগের লোকজন বিভিন্ন কেন্দ্রে থেকে জোরপূর্বক এজেন্টদের মারধর করে বের করে দিয়ে কেন্দ্র দখল নিয়ে জাল ভোট দেয়ার মহোৎসব চালায়। কেন্দ্রে দায়িত্বরত আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা নিরব ভূমিকা পালন করে।দুপুরে ছতুরপুর কেন্দ্র দখল করে সরকারি দলীয় সমর্থকরা জাল ভোট প্রদানের অভিযোগ করেছেন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আলী নেওয়াজ।
 এই কেন্দ্রে সকাল ১১ টায় কেন্দ্র দখল করে ৬’শ জাল ভোট দেয় সরকার দলীয় লোকজন। দুপুর ২টার পর উপজেলার অধিকাংশ ভোট কেন্দ্রে জাল ভোট প্রদানের মহোৎসব শুরু হয়। ওয়ার্কার্স পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী দীপক চৌধুরী বাপ্পী জানান, চর দখলের মত বিজয়নগর উপজেলার মানুষের ভোট হরন করেছে সরকারী দলীয় ক্যাডাররা।
 
বিএনপি সমর্থিত উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী এডভোকেট মো. শরিফুল ইসলাম লিটন দুপুর দেড়টায় কেন্দ্র দখল, ভোট কারচুপি, এজেন্টদের মারধোর করে বের করে দেয়ার অভিযোগ এনে নির্বাচন বর্জন করার ঘোষণা দেন।
 

এ জাতীয় আরও খবর