মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সরাইলে ১৩ প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত

Upzila-electionব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ২০ প্রার্থীর মধ্যে ১৩ প্রার্থীই তাদের জামানত হারিয়েছেন।
 
উপজেলা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় পর্বের উপজেলা পরিষদ নির্বানে এই উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৯ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। উপজেলার নয়টি ইউনিয়নে ৮০টি ভোট কেন্দ্রে মোট ভোটার ছিল এক লাখ ৮৭ হাজার ১২৯। নির্বাচনে প্রদত্ত ভোটের সংখ্যা এক লাখেরও বেশি।

 এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুর রহমান (কাপ-পিরিচ)। তিনি পেয়েছেন ৩৯ হাজার ১৩৪ ভোট। 

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি র্নিদলীয় প্রার্থী শাহবাজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ওসমান উদ্দিন আহম্মদ খালেদ (মোটরসাইকেল)। পেয়েছেন ১৮ হাজার ৭৪০ ভোট।
 
ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (দল থেকে সদ্য বহিষ্কৃত) শের আলম মিয়া (মাইক) ২৯ হাজার ৯০১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ইসলামী ঐক্যজোটের লাল বাদশা (উড়োজাহাজ) পেয়েছেন ২৭ হাজার ১৭৬ ভোট।
 
মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তাহমিনা আক্তার (প্রজাপতি) ৩৬ হাজার ৩৬৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা রোকেয়া বেগম (হাঁস) পেয়েছেন ২৫ হাজার ১৮২ ভোট।

এদিকে নির্বাচনে তিন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ১৩ প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন। তারা হলেন- চেয়ারম্যান পদে বিলকিস বেগম (টেলিফোন) পেয়েছেন ৪৭৩ ভোট, এসএএম আল-আমীন আরেফিন (হেলিকপ্টার) পেয়েছেন ১৫০১ ভোট। উপজেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা কুতুব উদ্দিন (দোয়াত কলম) পেয়েছেন চার হাজার ৮৩৯ ভোট। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (দল থেকে সদ্য বহিষ্কৃত) জয়নাল উদ্দিন (আনারস) পেয়েছেন দুই হাজার ৪৬৩ ভোট। তাজুল ইসলাম ভূঞা (ব্যাটারি) পেয়েছেন ২২৭  ভোট ও মুখলেছুর রহমান (চিংড়ি) পেয়েছেন ১১ হাজার ৮৯৭ ভোট।

ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে জামানত হারিয়েছেন বিএনপি নেতা আবু সুফিয়ান সিদ্দিকী (টিয়া পাখি)। তিনি পেয়েছেন ১১ হাজার ৩২০ ভোট। যুবদল নেতা জহির উদ্দিন আহমেদ (টিউবওয়েল) পেয়েছেন ৩১৪ ভোট। যুবলীগ নেতা জয়নাল আবেদীন রাজু (তালা) পেয়েছেন পাঁচ হাজার ২৬৩ ভোট। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ও উপজেলা পরিষদের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ও চুন্টা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মিয়াও (বৈদ্যুতিক বাল্ব) জামানত হারিয়েছেন। তিনি পেয়েছেন আট হাজার ৩৫৭ ভোট। 
এছাড়াও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শিরিনা আকতার (কলস) আট হাজার ৩০৯ ভোট পেয়ে জামানত হারিয়েছেন। 

সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ এমরান হোসেন জানান, প্রদত্ত (কাস্টিং) ভোটের আট ভাগের এক ভাগ ভোট না পাওয়া প্রার্থীদেরকে জামানত হারানোর তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।