রবিবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সরাইলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

S Electionআগামী ২৭ ফেব্রুয়ারির উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ২০ জন প্রার্থী। এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন একজন মহিলাসহ ৯ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে চারজন। চেয়ারম্যান পদে বিএনপির একক প্রার্থী থাকলেও আওয়ামী লীগে রয়েছে তিনজন প্রার্থী। ফলে আওয়ামী লীগের তুলনায় সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে বিএনপি।
প্রতীক বরাদ্ধের পর নির্বাচনী মাঠে জোরেশোরে প্রচার চালাচ্ছেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা। নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় এখন মুখর গোটা সরাইল। চলছে প্রার্থীদের পক্ষে মাইকিং। পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো উপজেলা এলাকা। প্রার্থীরা যাচ্ছেন ভোটারদের ঘরে ঘরে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা। ভোটারদের কদর বেড়েছে। তাদের মাঝেও দেখা যাচ্ছে ব্যাপক উচ্ছ্বাস। গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা।
এই উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী রফিক উদ্দিন ঠাকুর (ঘোড়া), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক জয়নাল উদ্দিন (আনারস) ও আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট মুখলেছুর রহমান (চিংড়ি মাছ), বিএনপির একক প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুর রহমান (কাপ-পিরিচ), উপজেলা জামায়াতের আমির মওলানা কুতুব উদ্দিন (দোয়াত-কলম), নির্দলীয় তাজুল ইসলাম (ব্যাটারি), নির্দলীয় প্রার্থী ও উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ওছমান উদ্দিন খালেদ (মোটরসাইকেল), এসএএম আল-আমীন আরেফিন (হেলিকপ্টার) এবং বিলকিছ বেগম (টেলিফোন)।
ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন_ আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী ও বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান মিয়া (বৈদ্যুতিক বাল্ব), বিদ্রোহী প্রার্থী যুবলীগ নেতা শের আলম (মাইক), বিএনপির উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জহির উদ্দিন আহমেদ (টিউবওয়েল), সরাইল উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান সিদ্দিকী (টিয়া পাখি), উপজেলা জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম দলের সভাপতি জয়নাল আবেদীন (তালা), ইসলামী ঐক্যজোটের লাল বাদশা (উড়োজাহাজ) এবং ইছহাক মিয়া (চশমা)। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী ও উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী রোকেয়া বেগম (হাঁস), বিএনপির তাহমিনা আক্তার (প্রজাপতি), নির্দলীয় প্রার্থী শামীমা আক্তার (ফুটবল) এবং শিরিনা আক্তার (কলস) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় এগিয়ে আছেন বিএনপির একক চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাডভোকেট আবদুর রহমান (কাপ-পিরিচ)। গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনি সামান্য ভোটে পরাজিত হয়েছিলেন। অন্যদিকে, বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী রফিক উদ্দিন ঠাকুরক (ঘোড়া) লড়তে হচ্ছে দলে তার দুই বিদ্রোহী প্রার্থীর সঙ্গেও। এছাড়া নির্দলীয় প্রার্থী ও উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ওছমান উদ্দিন খালেদের (মোটরসাইকেল) রয়েছে পুরো এলাকায় ব্যাপক জনপ্রিয়তা। প্রথম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনি চেয়ারম্যান পদে অল্প ভোটে পরাজিত হওয়ায় তার প্রতি ভোটারদের সহানুভূতি রয়েছে। তবে অনেক ভোটার মনে করেন, শেষ পর্যন্ত বিএনপির একক প্রার্থী অ্যাডভোকেট আবদুর রহমান (কাপ-পিরিচ), আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী রফিক উদ্দিন ঠাকুর (ঘোড়া) এবং নির্দলীয় প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা ওছমান উদ্দিন খালেদের (মোটরসাইকেল) মধ্যে ত্রিমুখী লড়াই হবে।

 

এ জাতীয় আরও খবর