শনিবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দুর্নীতির দায়ে রুহুলসহ গ্রেপ্তার হতে পারেন সাবেক তিন মন্ত্রী

priyodesh.net-pic-ruhul-300x225imagesamkimagesmr

গত মহাজোট সরকারের আমলের এক মন্ত্রী, দুই প্রতিমন্ত্রীকে দুর্নীতির দায়ে গ্রেপ্তার করার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী থাকাকালে গত পাঁচ বছরে তাদের সম্পত্তি ‘অস্বাভাবিক’ভাবে বেড়ে গেছে।

এসব মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রীর অনিয়ম, দুর্নীতির বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অনুসন্ধানে এর মধ্যে মাঠে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এরপর দুদক তাদের বিরুদ্ধে তদন্তকরবে। এর পরিপ্রেক্ষিতে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে।

তারা হলেন, সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক, সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খান, সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান। আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারক পর্যায়ের দুই নেতা, দুদক এসব তথ্য জানায় ।

যোগাযোগ করলে দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য জানান, ‘সাবেক মন্ত্রী ডা. রুহুল হক, প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খান, মাহবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে অস্বাভাবিক সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গত রোববার দুদকের নিয়মিত বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।’

দুদকের সূত্র জানায়, ‘মহাজোট সরকার, নবম জাতীয় সংসদের প্রায় অর্ধশত মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে অস্বাভাবিকভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগ এই মুহূর্তে দুদকের কাছে আছে। তবে তদন্ত করে আপাতত মামলা দায়েরের নির্দেশ আছে শুধু রুহুল হক, আবদুল মান্নান খান, মাহবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে।’

বিষয়টি নিয়ে সরকারের নীতিনির্ধারক, আওয়ামী লীগের জৌষ্ঠ দুই নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘রুহুল হক, আবদুল মান্নান খান, মাহবুবুর রহমানের ওপর আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতৃত্ব খুব ক্ষুব্ধ। তারা গ্রেপ্তার হলে সরকার জনগণকে বোঝাতে পারবে, দুনীর্তির বিরুদ্ধে সরকার কঠোর।’

আওয়ামী লীগের ওই জৌষ্ঠ দুই নেতা আরো জানান, ‘মহাজোটের সরকারের আমলের আরো কয়েক মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সংসদ সদস্যের দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে গঠিত নতুন সরকার।’

আওয়ামী লীগের মধ্যে এমন গুজবও চালু আছে, ‘মহাজোট সরকারের আমলে প্রভাবশালী ছিলেন, কিন্তু এখন দলের শীর্ষ নেতৃত্ব তাদের ওপর ক্ষুব্ধ, তারা নতুন সরকারের কালে মামলা, গ্রেপ্তারসহ নানা চাপে পড়তে পারেন।’

গত ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত সংসদ নির্বাচনের আগে নির্বাচন কমিশনের হলফনামায় প্রার্থী হিসেবে দেয়া তথ্য বলছে, আ ফ ম রুহুল হক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালনকালে পাঁচ বছরে তার স্ত্রীর সম্পদ বেড়েছে ৭৮২ শতাংশ। বড় ব্যবসায়ী হয়েছেন তার একমাত্র ছেলে জিয়াউল হক। চাকরি ছেড়ে তিনি আন্তর্জাতিক টেলিফোন কল, ওষুধের ব্যবসা করছেন।

সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খানের সম্পদ গত পাঁচ বছরে ১০৭ গুণ বেড়েছে। পাঁচ বছর আগে মান্নান খান দম্পতির আয় ছিল ২৬ লাখ ২৫ হাজার টাকা। নির্ভরশীলদের কোনো আয় ছিল না। পাঁচ বছর পর তিনি, তার  স্ত্রী বা অন্য নির্ভরশীলদের বছরে আয় হয়ে গেছে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা।

সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান ক্ষমতার পাঁচ বছরে ২০ একর জমি থেকে দুই হাজার ৮৬৫ একর জমির মালিক হন। পাঁচ বছরে তার ব্যাংকে টাকা বেড়েছে ৫৮৬ গুণ, জমি বেড়েছে ১৪৩ গুণ, বছরে আয় বেড়েছে ৭৯ গুণ।

তথ্যমতে, ডা. আ ফ ম রুহুল হক মন্ত্রী থাকাকালে স্বাস্থ্যখাতে দুর্নীতি, নিজ এলাকা সাতক্ষীরায় না গিয়ে ঢাকায় টাকা কামানোতে ব্যস্ত থাকায় আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারকরা তার ওপর ক্ষুব্ধ। গত বছরের শেষ দিকে সরকার বিরোধী আন্দোলন, যুদ্ধাপরাধীর চলমান বিচারকে কেন্দ্র করে যেসব এলাকায় সহিংসতা অনেকটা স্থায়ী রূপ নেয়, সেগুলোর মধ্যে রুহুল হকের জেলা সাতক্ষীরা ছিল অন্যতম। জেলাটি জামায়াতের ‘ঘাঁটি’ হয়ে ওঠেছে। এর জন্য রুহুলের ব্যর্থতাকে দায়ি করছে আওয়ামী লীগ।

৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর ঢাকা-১ সংসদীয় আসনে বিজয়ী জাতীয় পার্টির প্রার্থী সালমা ইসলামের ও পরাজিত আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খানের সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এতে চারজন নিহত, আহত হন অন্তত ২০ জন। এর জন্য সরকার দেশ, বিদেশে সমালোচনার শিকার হয়। এতে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃত্ব আরো ক্ষুব্ধ হয় মান্নান খানের ওপর।

এ জাতীয় আরও খবর

আহসান কবীরকে চাপা দেওয়া সিটি করপোরেশনের গাড়িচালক গ্রেপ্তার

নাসিরনগরে স্থায়ী মন্দিরের নিরাপত্তা বিষয়ক মতবিনিময় সভা

নাসিরনগরে ধান ক্ষেত থেকে অজ্ঞাত ব‍্যাক্তির লাশ উদ্ধার

নাসিরনগরে তৈরি হচ্ছে দেশীয় মাছের নানা জাতের শুটকি

বিয়ের আগেই মা হচ্ছেন স্বরা!

রাস্তা হওয়া উচিত ক্যাটরিনার গালের মতো মসৃণ: রাজস্থানের মন্ত্রী

ঢাকায় বিএনপির মশাল মিছিল

খালেদাকে স্লো পয়জনিং করলে বিএনপির লোকেরাই করতে পারে: কাদের

গণতন্ত্রের কথা বলে যুক্তরাষ্ট্র বিভিন্ন দেশকে চাপে রাখতে চায়

লাইসেন্স ছাড়াই ডিএসসিসির গাড়ি চলাচ্ছিলেন হারুন-রাসেল: র‌্যাব

সেই লিটন, এই লিটন

ভোলায় মাঝনদীতে চেয়ারম্যান-মেম্বারদের লক্ষ্য করে গুলি, নিহত ১