বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জ্যোতির ফিফটির পরও হারল বাংলাদেশ

news-image

স্পোর্টস ডেস্ক : ভারত নারী দলকে দেড়শর আগে আটকে রেখেছিলেন বাংলাদেশ নারী দলের বোলাররা। সিলেটের ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে লক্ষ্যটা ছিল মাঝারি মানের। সেটা তাড়া করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয় টাইগ্রেসদের। সেখান থেকে নিগার সুলতানা জ্যোতির ফিফটির পরও আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি বাংলাদেশ। ৪৫ রানের ব্যবধানে জিতেছে ভারত।

রোববার (২৮ এপ্রিল) সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রান তুলে ভারত। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেছেন ইয়াস্তিকা ভাটিয়া।

জবাবে খেলতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১০৮ রানের বেশি করতে পারেনি বাংলাদেশ। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৮ বলে ৫১ রান করেছেন জ্যোতি। তাছাড়া মুর্শিদা করেছেন ১৩ রান।

১৪৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে শুরু করেছিলেন দিলারা আক্তার। তবে ইনিংসে সেটাই তার প্রথম ও শেষ বাউন্ডারি। পরের বলেই ফিরেছেন সাজঘরে। সেই থেকে শুরু। টাইগ্রসদের আসা-যাওয়ার মিছিল আর থামেনি।

৩০ রান তুলতেই সাজঘরে ফেরেন টপ অর্ডারের চার ব্যাটার। শঙ্কা দেখা দেয় অলআউটের। তবে অধিনায়ক জ্যোতি এক প্রান্ত আগলে রেখে দলকে টানেন। তবে তাকে যোগ্য সঙ্গ দিতে পারেনি কেউই। শেষ পর্যন্ত তার ৫১ রানের ইনিংসে কোনরকমে একশ পার করে বাংলাদেশ।

এর আগে ভারতের ইনিংসে নতুন বলে মারুফার ওপরই আস্থা রেখেছিলেন জ্যোতি। প্রথম ওভারেই দুই বাউন্ডারিতে এই পেসারকে সেট হতে দেননি শেফালি ভার্মা। অবশ্য পরের ওভারেই উইকেটের দেখা পেতে পারতো বাংলাদেশ। সুলতানাকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে সহজ ক্যাচ দেন স্মৃতি মান্দানা। কিন্তু সেটা হাতে জমাতে পারেননি ফারিহা তৃষ্ণা।

সেই তৃষ্ণাই পরের ওভারে দলকে ব্রেকথ্র এনে দেন। তার করা অদ স্টাম্পের বাইরের বল টেনে খেলতে গিয়ে ইনসাইড এডজে বোল্ড হয়েছেন স্মৃতি। তবে দারুণ ব্যাটিং করেছেন আরেক ওপেনার শেফালি ভর্মা। ২২ বলে ৩১ রান করেছেন এই ওপেনার।

ভারতের মিডল অর্ডার ব্যাটাররাও রানের দেখা পেয়েছেন। ইয়াস্তিকা ভাটিয়া করেছেন ২৯ বলে ৩৬ রান। চারে নেমে হারমানপ্রীত করেছেন ২২ বলে ৩০ রান। তাছাড়া রিকা ঘোষের ব্যাট থেকে এসেছে ২৩ রান।

বাংলাদেশের হয়ে ২৩ রানে ৩ উইকেট শিকার করেছেন রাবেয়া খান। তাছাড়া ১৩ রান দিয়ে ২ উইকেট পেয়েছেন মারুফা আক্তার।