সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

২১ ফেব্রুয়ারি শহীদ মিনারে যাচ্ছেনা খালেদা জিয়া

21-khaledaডেস্ক রির্পোট : বিএনপি’র চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবার শহীদ মিনারে যাচ্ছেন না। তবে তাঁর পক্ষ থেকে প্রতিনিধিরা অমর একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাবেন।

এদিকে আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে দলের যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘প্রতিবছরের ন্যায় এবারও মহান একুশে ফেব্রুয়ারি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপির পক্ষ থেকে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা ও পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হবে।’

বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সব পর্যায়ের নেতা-কর্মীকে শনিবার প্রত্যুষে রাজধানীর বলাকা সিনেমা হলের সামনে একত্রিত হয়ে সেখান থেকে শহীদ মিনারে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন তিনি।

তবে খালেদা জিয়ার প্রেস উইং-এর তথ্য কর্মকর্তা শাইরুল কবির খান জানান, ‘ দেশের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে ম্যাডাম খালেদা জিয়া একুশে ফেব্রুয়ারি নিজে শহীদ মিনারে যাবেন না বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তাঁর পক্ষ থেকে একটি প্রতিনিধি দল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে ভাষা শহীদদেও স্মৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করবেন।’

তিনি জানান,‘ তবে যদি এরমধ্যে পরিস্থিতির কোন ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটে তাহলে হয়তো সিদ্ধান্ত বদলানো হতে পারে।’

শাইরুল কবির খান জানান,‘ ৬ জানুযারি থেকে লাগাতার আন্দোলন শুরু হয়েছে , বিজয় অর্জন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। তাই একুশে ফেব্রুয়ারি অবরোধ প্রত্যাহার হচ্ছেনা।’

জানা গেছে, তিনটি কারণকে বিবেচনায় রেখে খালেদা জিয়া নিজে শহীদ মিনারে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। প্রথমত: অবরোধে তিনি গাড়ি ব্যবহার করে শহীদ মিনারে গেলে আন্দোলন প্রশ্নবিদ্ধ হবে। দ্বিতীয়ত: তিনি গুলশানের অফিস ছেড়ে শহীদ মিনারে গেলে গুলশানের অফিসে তাঁকে আবার ফিরে যাওয়ার সুযোগ নাও দেয়া হতে পারে। তৃতীয়ত: নিরাপত্তা।

খালেদা জিয়া ৩ জানুয়ারি থেকে তাঁর গুলশান কার্যালয়ে অকস্থান বরছেন। শাইরুল কবির খান জানান. ‘আন্দোলন যতদিন চলবে ততদিন তিনি গুলশান কার্যালয়েই অবস্থান কররবেন।’

এদিকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া জানিয়েছেন,‘ শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানাতে কোন রাজনৈতিক নেতার বাধা নেই। যারা যাবেন তাদের আমরা সহযোগিতা করব।’