বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসককে তলব হাইকোর্টে

B Baria Mapপ্রতিনিধি : আদালতের আদেশ অমান্য করায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ মোশারফ হোসেনকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ২১ মে আদালতে হাজির হয়ে তাকে নিজ অবস্থানের ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। একই সাথে তার বিরুদ্ধে কেন আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত। গতকাল বুধবার নির্বাচনসংক্রান্ত হাইকোর্ট বেঞ্চের বিচারপতি সৌমেন্দ্র সরকার এ আদেশ দেন। গত ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওই আসন থেকে স্বতন্ত্রভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী নাইয়ার কবিরের দায়ের করা এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত এ আদেশ দেন। আবেদনে নাইয়ার কবির বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর ওই আসনে জাতীয় পার্টি থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধাকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে; কিন্তু জিয়াউল হক মৃধা দলের সিদ্ধান্ত মোতাবেক  গত ১৩ ডিসেম্বর তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছিলেন। সে জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর একটি আবেদনও জমা দিয়েছিলেন মৃধা; কিন্তু বিষয়টি গোপন করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর গত ১৩ জানুয়ারি কারচুপির অভিযোগে হাইকোর্টের নির্বাচনী আদালতে মামলা করেন নাইয়ার কবির। এরপর গত ৩০ জানুয়ারি জিয়াউল হক মৃধার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের মূল কপি তলবের জন্য আদালতের কাছে আরো একটি আবেদন করেন তিনি। আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে মূল কপি উপস্থাপনের জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তাকে আদেশ দেন; কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তা জমা না দেয়ায় আদালত অবমাননার অভিযোগ দায়ের করেন বাদিপক্ষ। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল গতকাল জেলা প্রশাসক বা রিটার্নিং কর্মকর্তাকে আদালতে হাজির হয়ে নিজ অবস্থানের ব্যাখ্যা দিতে তলব করেন এবং রুল জারি করেন। রিটকারীর পে আদালতে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ বাকির উদ্দিন ভূঁইয়া। তাকে সহায়তা করেন অ্যাডভোকেট মশিউর রহমান শামীম ও অ্যাডভোকেট এস এম ইকবাল বাহার ভূঁইয়া।