বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বার্য়ানের পরাজয়ে সুসংবাদ পেল রিয়াল

কয়েকদিন আগেই বরুসিয়া ডর্টমুন্ড ছিল রিয়াল মাদ্রিদের পথের কাঁটা। সেমিফাইনালের টিকিট পাওয়ার জন্য জার্মান ক্লাবটির বিপক্ষেই জোর লড়াই করতে হয়েছে রিয়ালকে। তবে এখন এই ডর্টমুন্ড হতে পারে রিয়ালের অনুপ্রেরণাও। ডর্টমুন্ডই যে দেখিয়ে দিল বায়ার্ন মিউনিখ-বধের কৌশল। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা বায়ার্নকে গতকাল এক ঝটকায় মাটিতে নামিয়ে এনেছেন ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা। জার্মান লিগে বায়ার্নকে হারিয়েছে ৩-০ গোলের বড় ব্যবধানে। সেটিও বায়ার্নের মাঠেই!

সাত ম্যাচ হাতে রেখেই বুন্দেসলিগার শিরোপা জয় নিশ্চিত করেছে বায়ার্ন। কিন্তু এরপর শিরোপা জয়ের উচ্ছ্বাসেই যেন কিছুটা টলোমলো হয়ে পড়েছে বাভারিয়ানরা। পুরো মৌসুম অপরাজিত থাকার পর গত সপ্তাহে অসবার্গের বিপক্ষে হেরেছিল ১-০ গোলে। মাঝারি সারির এই দলের বিপক্ষে হারটাকে হয়তো অঘটনই বলবেন অনেকে। কিন্তু গতকাল ডর্টমুন্ড যেভাবে ৩-০ গোলের জয় পেয়েছে, সেটাকে অঘটন বলার কোনোই সুযোগ নেই। বায়ার্নকে কোনো সুযোগই দেয়নি ডর্টমুন্ড। 

পুরো ম্যাচের ৭১ শতাংশ সময় বলের দখল নিজেদের কাছে রাখলেও একবারও গোলের দেখা পায়নি বায়ার্ন। উল্টো প্রথমার্ধের ২০ মিনিটে বায়ার্নের জালেই বল জড়িয়েছিলেন মাখিতারইয়ান। প্রথম ঘণ্টার মধ্যেই ব্যবধানটা হয়ে গিয়েছিল ৩-০। ৪৯ ও ৫৬ আরও দুটি গোল করেছিলেন মার্কো রিউস ও ইয়োনাস হফমান। পুরো ম্যাচেই যে বায়ার্ন নিজেদের খুঁজে পায়নি, সেটা ম্যাচ শেষে স্বীকারও করে নিয়েছেন গার্দিওলা, ‘বরুসিয়াকে অভিনন্দন। প্রথমার্ধে আমরা নিজেদের খুঁজে পাইনি। আর দ্বিতীয়ার্ধেও আমাদের কিছু একটা ঘাটতি ছিল। আমরা এখন পর্যন্ত রক্ষণের দিক দিয়ে খুব শক্তিশালী ছিলাম। কিন্তু আজ সেটা আমরা দেখাতে পারিনি।’

নিয়মিত দুই স্ট্রাইকার টনি ক্রুস, টমাস মুলারকে ছাড়াই অবশ্য গতকাল প্রথম একাদশ সাজিয়েছিলেন গার্দিওলা। রক্ষণভাগেও এনেছিলেন বেশ কিছু পরিবর্তন। তবে হারের পেছনে এগুলোকে অজুহাত হিসেবে দেখাতে চান না এই স্প্যানিশ কোচ, ‘আমি হয়তো কিছু ভুল করেছি। আমরা যেভাবে খেলছিলাম, সেভাবে না খেলাটা হয়তো ভুল হয়েছে। কিন্তু দলে পরিবর্তন আনাকে আমি অজুহাত হিসেবে নেব না।’

২৩ এপ্রিল বায়ার্নের বিপক্ষে সেমিফাইনালের প্রথম লেগে মাঠে নামবে রিয়াল মাদ্রিদ। তার আগে হয়তো এই ম্যাচের ভিডিওটা বারবারই দেখতে চাইবেন রিয়ালের খেলোয়াড়েরা। বায়ার্নকে একেবারে মোক্ষম সময়েই পাচ্ছে তারা। জার্মান লিগ ও চ্যাম্পিয়নস লিগ মিলিয়ে সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচের মাত্র একটিতে জিতেছে বায়ার্ন!