সোমবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সাগর-রুনিকে খুন করেছে দুজন: র‌্যাব

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা সম্পর্কে আবার নতুন তথ্য দিয়েছে র‌্যাব। ঘটনার দুই বছর পরে র‌্যাবের তদন্তকারী দল জানিয়েছে, খুনিরা সংখ্যায় দুজন ছিল। তবে তারা কে বা কারা, তা জানাতে পারেনি তদন্তকারী দল। ইউএনবিতে প্রকাশিত এক খবরে তদন্তকাজে নিয়োজিত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক র্যাবের এক কর্মকর্তা জানান, হত্যাকাণ্ডের রাতে সাগর-রুনির বাড়িতে দুজন ব্যক্তি ছিল। তারাই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। র্যাবের সদর দপ্তরে উইং কমান্ডার এ টি এম হাবিবুর রহমান বলেন, আধুনিক প্রযুক্তি ও বৈজ্ঞানিক উপায়ে তদন্তকাজ চলছে। সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রেসিডেন্ট শাহেদ চৌধুরী বলেছেন, হত্যাকাণ্ডের দুই বছর পরও আমরা জানতে পারিনি কারা, কেন এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল। র্যাবকে সক্রিয় বাহিনী হিসেবে উল্লেখ করে শাহেদ চৌধুরী আরও বলেন, সোনালী ব্যাংকে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে টাকা চুরির ঘটনার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দায়ী ব্যক্তিরা ধরা পড়েছে। কিন্তু সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা কেউ ধরা পড়েনি। ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের ভাড়া বাড়ি থেকে মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সরওয়ার ও তাঁর স্ত্রী এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনির রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সন্দেহভাজন আট ব্যক্তি এখন কারাগারে রয়েছেন। গত বছরের ১৪ এপ্রিল হাইকোর্টের এক আদেশ অনুসারে সাগর-রুনির হত্যামামলার তদন্তের কাজ শুরু করে র্যাব। এর আগে মামলাটির তদন্তভার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কাছে ছিল।