বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রচণ্ড গতি ও পুরোনো টায়ার কেড়ে নিয়েছে পলের প্রাণ

একটি দাতব্য অনুষ্ঠান শেষ করে ফেরার পথে গত বছরের ৩০ নভেম্বর বিকেলে লস অ্যাঞ্জেলেসে সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস’ তারকা পল ওয়াকার। দুর্ঘটনার সময় ঘণ্টায় ১৫০ কিলোমিটার গতিবেগে পলকে বহনকারী গাড়িটি চালাচ্ছিলেন তাঁর বন্ধু রজার রোডাস। তদন্তের পর সম্প্রতি দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে গাড়ির প্রচণ্ড গতির পাশাপাশি নয় বছরের পুরোনো টায়ারকেও দায়ী করা হয়েছে।

দুর্ঘটনায় পলের পাশাপাশি রজারও ঘটনাস্থলেই নিহত হন। রজার যে রাস্তায় পোর্শে গাড়িটি চালাচ্ছিলেন, সেখানে ঘণ্টায় ৭০ কিলোমিটার গতিবেগে গাড়ি চালানোর সীমারেখা থাকলেও তিনি তা মানেননি। বেঁধে দেওয়া গতিসীমার দ্বিগুণেরও বেশি গতিতে গাড়ি চালাচ্ছিলেন রজার। নজরদারির জন্য রাস্তায় বসানো ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিও ফুটেজ এবং দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ির কম্পিউটার থেকে এসব তথ্য সংগ্রহ করেছে তদন্তের দায়িত্বে থাকা লস অ্যাঞ্জেলেস পুলিশ। গাড়ির কম্পিউটার থেকে তথ্য উদ্ধারে পুলিশকে সাহায্য করেছে গাড়িটির প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান।

সান্তা ক্লারিটা বিজনেস পার্কের কাছে আঁকাবাঁকা রাস্তায় ২০০৫ সালে নির্মিত পোর্শে জিটি মডেলের গাড়িটি প্রচণ্ড গতিবেগে চালানোর সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে লাইট পোস্ট ও গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। সঙ্গে সঙ্গে গাড়িটিতে আগুন ধরে যায়। ঘটনাস্থলেই বন্ধু রজারের সঙ্গে নিহত হন ৪০ বছর বয়সী পল। তদন্তে গাড়ির যান্ত্রিক কোনো ত্রুটি ধরা পড়েনি। তবে গাড়িটির নয় বছরের পুরোনো টায়ারকে দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তারা। সম্প্রতি এক খবরে এ তথ্য জানিয়েছে লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস।

দুর্ঘটনার পরপরই গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং আগুনে ভস্মীভূত হয়। আগুনে পলের শরীর এমনভাবে পুড়ে যায় যে তাঁকে শনাক্ত করাই কঠিন হয়ে পড়ে। পলের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তাঁর হাত, কবজি, চোয়াল ও পাঁজরের হাড় ভেঙে যাওয়ার পাশাপাশি মাথা, ঘাড় ও বুক গুরুতরভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। গাড়ির চালক রজারের শরীরেও একই ধরনের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। এ ছাড়া তাঁর মাথার খুলি ভাঙা অবস্থায় পাওয়া গেছে।

তুমুল জনপ্রিয় ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস’ সিরিজের সপ্তম ছবিতে ব্রায়ান ও’কনার চরিত্রে অভিনয় করছিলেন পল ওয়াকার। এর অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন ভিন ডিজেল, ডোয়েন জনসন, মিশেল রড্রিগজ, জেসন স্ট্যাথাম, কার্ট রাসেল প্রমুখ। অ্যাকশন ঘরানার ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস ৭’ ছবির পরিচালক জেমস ওয়ান।

পলের আকস্মিক মৃত্যুর পর ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস ৭’ ছবির ভবিষ্যত্ অনিশ্চিত হয়ে পড়লেও শিগগির এর শুটিং শুরু হচ্ছে। এরইমধ্যে পলের অংশের দৃশ্যে অভিনয়ের জন্য চারজন বডি ডাবল ভাড়া করেছেন পরিচালক জেমস ওয়ান। তাঁদের দৈহিক গড়নের সঙ্গে পলের দৈহিক গড়নের অদ্ভুত মিল রয়েছে। সিজিআই (কম্পিউটার জেনারেটেড ইমেজারি) পদ্ধতিতে তাঁদের মুখের জায়গায় পলের মুখ বসিয়ে দেওয়া হবে বলেই জানিয়েছে ছবিটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র।