শুক্রবার, ৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আখাউড়ায় নিহত হাদিসই মামলার আসামি!

BGPব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় বিজিবির গুলিতে নিহত যুবদল নেতা হাদিস মিয়ার বিরুদ্ধেই মামলা করেছে বিজিবি-পুলিশ। হাদিস ও তার ভাই পৌর কাউন্সিলর বাহার মিয়াসহ আড়াইশ' লোকের বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়। এদিকে নিহতের প্রতিবাদে ও হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে গতকাল সোমবার উপজেলায় অর্ধদিবস হরতাল পালিত হয়েছে। পরে বাদ আসর পারিবারিক কবরস্থানে হাদিসের লাশ দাফন সম্পন্ন হয়েছে।
 রোববার আখাউড়া উপজেলা নির্বাচনের ভোট গ্রহণকালে তারাগণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে জাল ভোট দেওয়া নিয়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষকালে বিজিবির সদস্যরা গুলি চালায়। এতে উপজেলা যুবদলের সহসভাপতি হাদিস মিয়া (৪০) গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান।
এদিকে, হাদিস মিয়া নিহত হওয়ার ঘটনায় বিজিবি ও পুলিশ পৃথক দুটি মামলা করেছে। রোববার রাতে বিজিবির দায়ের করা মামলায় নিহত হাদিস মিয়া ও তার বড় ভাই পৌর বিএনপির সভাপতি মো. বাহার মিয়াকেও আসামি করা হয়েছে। পুলিশ বাদী হয়ে দায়ের করা মামলায় আসামি করা হয়েছে অজ্ঞাতপরিচয় দুই-আড়াইশ' লোককে।
হাদিসের দাফন সম্পন্ন :সোমবার বাদ আসর তারাগণ মাঠে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে হাদিসকে সমাহিত করা হয়েছে।
জানাজায় কসবা-আখাউড়ার বিএনপিদলীয় সাবেক সংসদ সদস্য মুশফিকুর রহমান, আখাউড়া উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ শেখ বোরহানউদ্দিন, নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. মুসলিম উদ্দিন, সাবেক পৌর মেয়র নুরুল হক ভূঁইয়া, বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল মনসুর মিশন, প্রেস ক্লাব সভাপতি মো. ইউসুফ সারোয়ার, পৌর কাউন্সিলর হাজি মন্তাজ মিয়া, সৈয়দ আমানুল্লাহ, নিহতের বড় ভাই বাহার মিয়াসহ শত শত মানুষ অংশ নেন। সমকাল