মঙ্গলবার, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১১ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বিজয়নগরে উচ্চ ফলনশীল টমেটোর বাম্পার ফলন

bbariaব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় চেঙ্গারবাজার, ফুলবাড়িয়া, চান্দুরা, সিঙ্গারবিল, দেওয়ান বাজার, মেরাশানি এলাকায় উচ্চ ফলনশীল টমেটোর চাষ করে সফলতার মুখ দেখছেন সহস্রধীক কৃষক। এসব এলাকায় টমেটোর চাষ করে কৃষকের ভাগ্যবদল হয়েছে। প্রথমে ২/১ জন কৃষক উচ্চ ফলনশীল জাতের টমেটোর চাষ স্বল্পপরিসরে শুরু করে লাভবান হওয়ায় এখন শত শত কৃষক টমেটোর চাষ করছেন। বর্তমানে টমেটো চাষ এসব এলাকার প্রধান অর্থকরী ফসল হিসেবে স্থান পেয়েছে। উপজেলার পত্তন এলাকার টমেটো চাষি সিদ্দিকুর রহমান জানান, তিনি এ বছর ৫০ শতক জমিতে টমেটোর চাষ করেছেন। সর্বমোট তার খরচ হয়েছে প্রায় ৩৫ হাজার টাকা। এ জমি থেকে এ পযর্ন্ত তার বিক্রি হয়েছে প্রায় ২ লক্ষ টাকার টমেটো। তিনি আরো জানান, অগ্রহায়নের শুরুতে ৭৫ থেকে ৮০ টাকা কেজিতে টমেটো বিক্রি শুরু করেন। জৈষ্ঠ্য আষাঢ় মাসে বীজ তলায় টমেটোর চারা উৎপাদন করে ভাদ্র মাসে জমিতে চারা রোপন করা হয়। কার্ত্তিক মাসের প্রথম দিকে টমেটোর গাছে ফুল ও ফল আসতে শুরু করে আশ্বিনের মাঝামাঝি ও অগ্রহায়নের প্রথম দিকে টমেটো বাজার জাত করা শুরু হয়। বিজয়নগরে এসব অঞ্চলে কৃষকরা মুলত বাণিজ্যিক ভিত্তিতে টমেটোর চাষাবাদ করে থাকে। প্রথমে যে সব কৃষক ক্ষুদ্র পরিসরে টমেটোর চাষ করতেন দিনে দিনে তারা বাণিজ্যিক পর্যায়ে টমেটোর চাষাবাদ শুরু করেছেন। এতে কৃষকরা হাজার হাজার টাকা বিনিয়োগ করেন। টমেটো চাষাবাদ করে এখন পর্যন্ত কোনো কৃষক লোকসানে পরেনি বরং স্বাবলম্ভী হয়েছে কৃষকরা। টমেটোর পাইকারী ক্রেতারা ক্ষেত চুক্তি টমেটো ক্রয় করে পিক-আপ ভ্যান, ছোট ও বড় ট্রাকসহ বিভিন্ন বাহনে দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যান। এখন নিজেই নার্সারীতে চারা উৎপাদন করে টমেটোসহ বিভিন্ন জাতের সবজি চাষাবাদ করে স্বাবলম্ভী হয়ে উঠেছেন। টমেটো সাধারণত শীত কালীন ফসল। আগে আমাদের এলাকার চাষীরা শীত কালে দেশী জাতের টমেটো চাষ করতেন। কিন্তু গত কয়েকবছর ধরে এলাকার কৃষকরা গ্রীষ্মকালে টমেটো চাষ করছেন। টমেটো একটি সুস্বাদু সব্জি হওয়ায় এ এলাকার টমেটোর কদর রয়েছে সারা দেশে। বিজয়নগর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান চৌধুরী তিতাসটুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এ বছর বিজয়নগরে উচ্চ ফলনশীল আগাম জাতের টমেটোর বাম্পার ফলন হয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিস থেকে কৃষকদের সকল প্রকার সহযোগীতা করা হয়েছে। 

এ জাতীয় আরও খবর