বৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৩২ রান

Bd Cricketসফরকারী শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম দিনেই ব্যাটিং ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে বাংলাদেশ। ইনিংসের ৬৩.৫ ওভারে মাত্র ২৩২ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে।

চা বিরতীর আগ পর্যন্ত অধিনায়ক মুশফিক ও অলরাউন্ডার সোহাগ গাজী চমৎকার আস্থার সঙ্গে খেলে সমর্থকদের সন্মানজনক স্কোরের স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন। কিন্তু চা বিরতীর সামান্য কিছু সময় পরেই শুরু হয় বিপর্যয়। একে একে বিদায় নেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, অলরাউন্ডার সোহাগ গাজী ও পেসার রুবেল হোসেন ও রবিউল ইসলাম। মূলতঃ অধিনায়কের বিদায়ের পরেই খেই হারিয়ে ফেলেন পরবর্তী ব্যাটসম্যানরা।  

মুশফিকের বিদায়ের পরই অতিরিক্ত আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন সোহাগ গাজী। অল্প সময়ের ব্যবধানে ২টি চার ও ১টি ছক্কা হাঁকান তিনি। কিন্তু সুরঙ্গ লাকমালের বলে আরেকটি ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে মিড অনে শামিন্দা ইরাঙ্গার তালুবন্দী হন তিনি ৪২ রান করে। মাত্র ৫৬ বলে ৬ বাউন্ডারি এবং ১ ছক্কায় এই রান তোলেন তিনি। এর আগে চমৎকার দায়িত্বশীল ইনিংস খেলতে থাকা অধিনায়ক মুশফিক ১২২ বলের মোকাবেলায় ৯ বাউন্ডারিতে ৬১ রান করে লঙ্কান পেসার সুরঙ্গ লাকমালের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পরেন।

এর আগে দিনের শুরুতেই তামিম ইকবাল ছয় রান করে সুরঙ্গ লাকমলের বলে ক্যাচ আউট হন। এরপর মার্শাল আইয়্যুব ব্যক্তিগত এক রান করে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজের বলে সাজঘরে ফেরেন। আরেক ওপেনার শামসুর রহমান অভিষেক টেস্ট খেলতে নেমে ৩৩ রান করেন। মুমিনুলের ব্যাটে আসে আট রান। তবে পঞ্চম উইকেটে মুশফিক-সাকিব জুটি প্রতিরোধ গড়েন। শেষে ৫৫ রান করে হেরাথের শিকার হন সাকিব। আর ইরাঙ্গার শিকার হয়ে চার রান করে ফেরেন তাড়াহুড়ো করতে থাকা নাসির।

এর আগে সোমবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টেস্টে টস জেতেন শ্রীলঙ্কান অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। আর টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন লঙ্কান দলপতি। ফলে প্রথমে ব্যাট করতে নামে মুশফিকুর রহিম বাহিনী।

বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে সিরিজের প্রথম এই টেস্টে বাংলাদেশের পক্ষে ৭১ তম টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হয় ওপেনার শামসুর রহমানের। যিনি এবার ঘরোয়া লিগে ব্যাটিংয়ে দারুণ আলো ছড়িয়েছেন। তুলে নিয়েছিলেন একটি ডাবল সেঞ্চুরি।

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস ২৩২(মুশফিক ৬১, সাকিব ৫৫, সোহাগ ৪২, শামসুর ৩৩, মুমিনুল ৮, তামিম ৬, আল আমিন অপরাজিত ৬, রবিউল ৫, নাসির ৪, ইরাঙ্গা ৪/৪৯, লাকমাল ৩/৬৬, হেরাথ ২/৫০, ম্যাথ্যুজ ১/১৮)

শ্রীলঙ্কা স্কোয়াড: কুশল সিলভা, দিমুথ করুনারত্মে, কুমার সাঙ্গাকারা, মাহেলা জয়বর্ধনে, দিনেশ চান্ডিমাল, অ্যাঞ্জোলো ম্যাথুস, কিথুয়ান ভিথানজে, দিলরুয়ান পেরেরা, সামিন্দা ইরাঙ্গা, রঙ্গনা হেরাথ ও সুরাঙ্গা লাকমল।