মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নাসিরনগরে এক রাতে ৭টি ঘরে ডাকাতি

dakat-2ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে এক রাতে দুটি বাড়ির ৭টি ঘরে ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতরা ওই বাড়ি দুটি থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকারসহ প্রায় ৮ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যায়। ডাকাতদের হামলায় ৩জন আহত হয়। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার গভীর রাতে নাসিরনগর উপজেলার চাপরতলা ও তারাউল্লাহ গ্রামে।
ডাকাতির শিকার বাড়ির লোকজন জানান, শনিবার গভীর রাত ৩টার দিকে ২০/২৫জনের একটি ডাকাতদল চাপরতলা গ্রামের নূরুল ইসলামের বাড়িতে প্রবেশ করে দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে। পরে ডাকাতরা ঘরের লোকদের জিম্মী করে বাড়ির ৩টি ঘরে ডাকাতি করে। এ সময় চিৎকার করায় ডাকাতরা নূরুল ইসলামের স্ত্রী খোদেজা বেগম-(৫৫), ছেলে নজরুল ইসলাম-(৩৫), পুত্রবধূ তাবিয়া বেগম-(৩০)কে মারধোর করে বাড়ি থেকে নগদ ৭৫ হাজার টাকা, ৩ ভরি স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোনসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। এর আগে রাত দেড়টার দিকে ডাকাতদল তারাউল্লাহ গ্রামের মঞ্জুর আলীর বাড়িতে হানা দিয়ে ৪টি ঘরে ডাকাতি করে। ডাকাতরা ওই বাড়ি থেকে নগদ ২ লাখ টাকা, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোনসহ প্রায় ৫ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে চম্পট দেয়। এলাকাবাসী জানান, মঞ্জুর আলীর ২ পুত্র বিদেশে থাকে।
ডাকাতির শিকার নুরুল ইসলাম বলেন, আমরা ডাকাতির পর পরই বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করেছি। তিনি বলেন, ডাকাতের হামলায় আমার স্ত্রী, পুত্রসহ ৩জন আহত হয়েছে।
এ ব্যাপারে নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল কাদেরের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ডাকাতির ঘটনা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।