বৃহস্পতিবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দীর্ঘকালীন সংকটে পড়তে যাচ্ছে অর্থনীতি

Bd Bank-2টানা হরতাল ও অবরোধের কারণে দেশের অর্থনীতি এক দীর্ঘকালীন সংকটে পড়তে যাচ্ছে বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদ ও ব্যবসায়ীরা৷ পোশাক খাতে প্রতিদিন গড়ে ক্ষতি হচ্ছে ২৫০ কোটি টাকা৷ ক্রেতারাও আগ্রহ হারিয়ে ফেলছেন৷


একটি পোশাক কারখানার মালিক ইসমাইল হোসেন বলেন, দেশের অনেক পোশাক কারাখানা এখন সময়মত ক্রেতাদের পোশাক সরবরাহ করতে পারছে না৷ আর কাঁচামালের সংকট ধীরে ধীরে প্রকট হয়ে উঠছে৷ এই অবস্থায় ক্রেতারা যদি স্থায়ীভাবে মুখ ফিরিয়ে নেন তাহলে পোশাক শিল্প বড় ধরনের সংকটে পড়বে৷ ক্রেতারা ইতোমধ্যেই ভারত ও চীনে বিকল্প বাজারের কথা ভাবছেন৷


তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমই-এর সভাপতি আতিকুল ইসলাম জানান, সবচেয়ে বড় আশঙ্কার কথা হলো এখন যে রাজনৈতিক সংকট চলছে তা সমাধানের কোনো আভাস দেখা যাচ্ছে না৷ বাইরের বিশ্বও মনে করে, এই সংকট দীর্ঘায়িত হতে পারে৷ তাই যদি হয় তাহলে পোশাক শিল্প মুখ থুবড়ে পড়তে পারে৷ এতে করে পোশাক খাতে কর্মরত ৪০ লাখ শ্রমিক বিশেষ করে মহিলা শ্রমিকরা পথে বসে যাবেন৷


ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই-এর সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন জানান তাদের হিসেবে, এখন প্রতিদিন গড়ে বাংলাদেশের শিল্প এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ২ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হচ্ছে৷ এছাড়া একটি ব্যবসা বা শিল্পের সঙ্গে আরেকটি শিল্পের আন্তঃসম্পর্ক রয়েছে৷ ফলে একটি শিল্প ক্ষতিগ্রস্ত হলে আরেকটিতে তার প্রভাব পড়ে৷ এতে করে এক ধরনের নেতিবাচক ‘চেইন রিএ্যাকশন' এ পড়ে যাচ্ছে দেশের উৎপাদন এবং রপ্তানি খাত৷


তিনি বলেন, ব্যবসায়ীরা এজন্যই পথে নেমেছেন, দাবি জানাচ্ছেন রাজনৈতিক সমঝোতার৷ বন্ধ করতে বলছেন হরতাল, অবরোধ৷ কিন্তু তাঁদের কথায় কোনো রাজনৈতিক দলই কান দিচ্ছে না বলেও জানান ব্যবসায়ীদের নেতা কাজী আকরাম উদ্দিন৷


সিপিডির অর্থনীতিবিদ ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম জানান, উৎপাদন খাতের সঙ্গে সঙ্গে এর সহায়ক শিল্প, সেবাখাত এবং ব্যাংকিং খাত ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে৷ ফলে পুরো শিল্প এবং ব্যবসা-বাণিজ্য এখন হুমকির মুখে৷ দেশে উৎপাদিত পণ্যের সরবরাহ ব্যবস্থা সংকুচিত হয়ে পড়ছে৷ একই সঙ্গে কাঁচামালের সরবরাহ বিঘ্নিত হওয়ায় উৎপাদনও হচ্ছে না ঠিকমত৷ ফলে ব্যবসা-বাণিজ্য এবং শিল্প মন্দার মধ্যে পড়ে গেছে৷


তিনি বলেন, রাজনৈতিক সংকট কেটে যাওয়ার এখনো কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না৷ তাই দীর্ঘমেয়াদে এই সংকট দেশের অর্থনীতিকে বিপর্যস্ত করবে৷ এক দীর্ঘকালীন সংকটে পড়তে যাচ্ছে দেশের অর্থনীতি৷


গোলাম মোয়াজ্জেম জানান, অনেক ছোট ছোট শিল্প কারখানা আছে যেগুলো প্রতিদিনের উৎপাদন এবং সরবরাহের ওপর নির্ভরশীল৷ টানা অবরোধ, হরতালের কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সেই সব শিল্প৷ আর সেখানে কর্মরত শ্রমিকরা কাজ হারাতে শুরু করেছেন৷


আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল মনে করে, চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি কোনোভাবেই ৫ থেকে সাড়ে ৫ ভাগের বেশি হবে না৷ অর্থনীতির জন্য এটি হবে একটি বড় ধাক্কা৷


গোলাম মোয়াজ্জেম বলেন, সিপিডিও মনে করে প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা এবার অর্জিত হবে না৷ তবে সবচেয়ে আশঙ্কার কথা, কয়েক দশকের চেষ্টায় দেশে ও দেশের বাইরে তৈরি পোশাক শিল্পসহ রপ্তানি পণ্যের একটি বাজার এবং সরবরাহ ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে৷ এটা যদি একবার নষ্ট হয় তাহলে সেটা গড়ে তুলতে আবারো অনেক সময় লাগবে৷ ফলে অর্থনীতি পড়বে বড় সংকটে, বাড়বে বেকারত্ব৷ রাজনীতিবিদদের এই কথাটা বুঝতে হবে৷ বিশ্ব মন্দার ধাক্কা সামাল দিতে পারলেও এই ধাক্কা সামলানো কঠিন হবে।

 

এ জাতীয় আরও খবর

যাত্রী বেশি হলে বিমানবন্দরে ল্যাব বাড়ানো হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনায় আরও ৩ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬১

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চাইল সেই ব্যাংক

মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সে বোমা আতঙ্ক, যেভাবে চলে অভিযান

মেয়র জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে এবার নওগাঁর আদালতে মামলা

আমিনবাজারে ৬ ছাত্র হত্যা : ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ১৯ জনের যাবজ্জীবন

ওমিক্রন আতঙ্কে ভারত : ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকায় আবারও বাংলাদেশ

সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকবে, লঘুচাপটি শক্তিশালী হচ্ছে

নিয়ম ভেঙে তুলে নেওয়া হয় ৩৬৮৭ কোটি টাকা

এইচএসসিতে বসেছে প্রায় ১৪ লাখ শিক্ষার্থী

৬ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা : ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

কথা দিয়ে কথা রাখুন : কাদের