সোমবার, ৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দুই নেত্রীর হাতে ১৬ কোটি মানুষ জিম্মী

Badialam alamসুজনে’র সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার বলেছেন, প্রধান দু’দলের মধ্যে সংকট নিরসন অনিশ্চিত। দু’নেত্রীই জানেন, এই অনিশ্চিত পথটি জাতিকে কোন দিকে নিয়ে যাবে। আমারা সুস্পষ্ট ভাবে বলতে পারব না, এই পথটি কোন দিকে যাচ্ছে। কারণ আমাদের দেশে অধিকাংশ সিদ্ধাšত্ম নেয়া হয় একক সিদ্ধাšেত্ম। অনেক ক্ষেত্রে সেই সিদ্ধাšত্মটি শুভ হয় না। এই দুই নেত্রীর হাতে ১৬ কোটি মানুষ জিম্মী। এক ব্যক্তির হাতে এতো ক্ষমতা থাকার কারণেই দেশের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়েছে।

বুধবার মতিউর রহমানের উপস্থাপনায় বেসরকারি চ্যানেল ‘চ্যানেল আই’- এ আজকের সংবাদপত্র পর্যালোচনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

বদিউল আলম মজুমদার বলেন, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে প্রধান দুই দলের মধ্যে যে সংকট সৃষ্টি হয়েছে তা যত দ্রুত সমাধান করা যায়, ততই জাতির জন্য ভালো। দেশের মানুষ শাšিত্মতে বসবাস করতে চায়, জীবনের নিরাপত্তা চায়, গণতান্ত্রিক অবস্থা অব্যাহত চায়।

রাষ্ট্রপতির সাংবিধনীক অধিকার না থাকলেও নৈতিক অধিকার আছে মšত্মব্য করি তিনি বলেন, এই নৈতিক অধিকার ব্যবহার করে যাতে এ সমস্যার সমাধান করা যায়-এ প্রসঙ্গে রাষ্ট্রপতি বলেছেন- সাংবিধানীক সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও সংকট সমাধানের জন্য তিনি (রাষ্ট্রপতি) সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন, এ আশা টুকু তিনি আমাদেরকে দিয়েছেন।

 

সংবিধানে রাষ্ট্রপতির সীমাবদ্ধতা নিয়ে ড. কামাল কী বললেন? উপস্থাপকের এ প্রশ্নের উত্তরে মজুমদার বলেন, তিনি (ড. কামাল) বলেছেন- সংবিধান পরিবর্তন বা সংশোধন করার এখনি একটি সময় এসেছে। আমাদের সংগঠন থেকেও বলা হয়েছে, সংবিধান থেকে কতগুলো ধারা সংশোধন করতে হবে। সংবিধানে পঞ্চদশ সংশোধনীতে যে ধারা মিমাংসিত ছিল, সেই ধারা পরিবর্তন করে অমিমাংসিত করা হয়েছে। এ থেকে দেশের মধ্যে সংকটের উৎপত্থি।

 

তিনি আরও বলেন, নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষণা করছে- এর ফলে দেশের মধ্যে সংঘাত ও হানাহানি শুরু হয়েছে, এটি সংলাপের জন্য ইতিবাচক পরিবেশ নয়। নির্বাচন কমিশন আরও কিছু দিন পরে তফসিল ঘোষণা করতে পারত।